June 23, 2024, 2:06 pm
ব্রেকিং নিউজ

প্রোটিয়াদের ১১৩ রানেই আটকে দিলেন বাংলাদেশ

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম Monday, June 10, 2024
  • 21 দেখা হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক;
পাওয়ারপ্লেতে দুর্দান্ত এক স্পেলে বাংলাদেশকে এগিয়ে দিলেন তানজিম সাকিব।আলো ছড়িয়েছেন তাসকিনও।টাইগারদের বোলিং তোপে প্রথম পাঁচ ওভারে মাত্র ২৩ রান তুলতেই চার উইকেটে হারিয়ে খাদের কিনারায় চলে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জয়ের নায়ক ডেভিড মিলার ও হেনরিখ ক্লাসেন পঞ্চম উইকেটে দারুণ এক জুটিতে ম্যাচে ফেরান প্রোটিয়াদের,এক পর্যায়ে থিতু হয়ে ম্যাচ টাইগারদের নাগালের বাইরে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিচ্ছিলেন এ দুজন।তবে শেষদিকে তাসকিন-রিসাদ-মুস্তাফিজের নিখুঁত তিন ওভারে ফের লাগাম টানল বাংলাদেশ।

নিউইয়র্কে নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১১৩ রানেই আটকে দিয়েছে বাংলাদেশ।স্মরণীয় স্পেলে চার ওভারে মাত্র ১৮ রান খরচায় তিন উইকেট নিয়েছেন তানজিদ।তাসকিনের শিকার দুই উইকেট।৪৪ বলে ৪৬ রানের দায়িত্বশীল এক ইনিংস খেলে প্রোটিয়াদের একশ পেরোনোর নায়ক হেনরিখ ক্লাসেন।

কঠিন পিচে লক্ষ্যটা একেবারেই মামুলি নয়।তবে রাবাদা-জেনসেনদের সামনে ব্যাটসম্যানরা দৃঢ়তা দেখাতে পারলে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয় পেয়েও যেতে পারে বাংলাদেশ।

নিউইয়র্কের পিচ সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ব্যাটিংয়ের জন্য কঠিন হয়ে যায়।সেটি মাথায় রেখেই কিনা কুইন্টন ডি কক পাওয়ারপ্লের পূর্ণ সুবিধা নিতে শুরু করলেন আগ্রাসী ভঙ্গিতে। তানজিম সাকিবের করা প্রথম ওভারের প্রথম বল ডট দেওয়ার পর পরের দুই বলে ছয় ও চারে নিলেন দশ রান।

তবে চাপ সামলে সেই ওভারেই ঘুরে দাঁড়ালেন তানজিম।ওভারের শেষ বলে দুর্দান্ত এক ইনসুইংয়ে ফেরালেন রেজা হেন্ড্রিকসকে। তাসকিনের করা ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ফের ছয় মারলেন ডি-কক।তবে সে ওভারে বাকি পাঁচ বলে কেবল এক রানই দিয়েছেন এই পেসার।

দারুণ ছন্দে খুঁজে পাওয়া তানজিম পরের ওভারে ফের পেলেন সাফল্য।বিপদজনক হয়ে ডি-কক কে করলেন বোল্ড।আউট হওয়ার আগে দুই ছয় ও এক চারে ১১ বলে ১৮ করেন এই প্রোটিয়া ওপেনার।তিন ওভারেও দুই ওপেনারকে হারানো আফ্রিকা আরও চাপে পড়ে তাসকিনের করা পরের ওভারে মার্করাম বোল্ড হলে।

তবে ম্যাচে বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণ আরও বাড়ে ইনিংসের টানা চতুর্থ ওভারে উইকেটের দেখা পেলে। দুর্দান্ত এক স্পেলের মধ্যে থাকা তানজিম সাকিব লাফিয়ে উঠা এক বলে মিড অফে ট্রিস্টান সাবসকে সাকিবের হাতে ক্যাচ বানান।৫ বল খেললেও তিনিও খুলতে পারেননি রানের খাতা। প্রথম তিন বলে ১০ রান দেওয়ার পর তানজিম দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ৩ ওভারে ১৩ রান নিয়েছেন তিন উইকেট।

চার উইকেট হারিয়ে খেই হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা।পাওয়ারপ্লের ৬ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে কেবল ২৫ রানই স্কোরকার্ডে জমা করতে পারে দলটি। ষষ্ঠ ওভারে বোলিংয়ে এসে মুস্তাফিজুর রহমান দিয়েছেন কেবল ১ রান।

তবে প্রোটিয়াদের ম্যাচ থেকে ছিটকে যেতে দেননি মিলার-ক্লাসেন।স্বভাবসুলভ মারমুখী ব্যাটিং বাদ দিয়ে দুজনই খেলেছেন পরিস্থিতি বুঝে।তবে সুযোগ পেলেই স্পিনারদের উপর চড়াও হয়েছেন ক্লাসেন।লেগ স্পিনার রিশাদের কর দশম ওভারে টানা দুই বলে হাকিয়েছেন দুই ছক্কা দুজনের জুটিতে একশ ছাড়িয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

১৭ ওভারে একশো পেরুনো আফ্রিকা ১৩০ এর আশেপাশে ইনিংস শেষ করার স্বপ্ন দেখছিল,যেটি উইকেটে প্রায় নিশ্চি উইনিং স্কোর । তবে এরপরই টাইগারদের প্রত্যাবর্তন। ১৮তম ওভারে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে এই জুটি ভাঙেন তাসকিন আহমেদ। তার ভেতরে ঢোকা দুর্দান্ত এক বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন ক্লাসেন। ৭৯ বলে ৭৯ রানের জুটি ভাঙে, যেটি ব্যাটসম্যানদের জন্য চ্যালেঞ্জিং নাসাউ কাউন্টিতে সর্বোচ্চ রানের জুটি। ৪টি চার ও ৩ ছক্কায় ৪৪ বলে ৪৬ রান করে ফেরেন ক্লাসেন।

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...
themesba-lates1749691102