June 23, 2024, 2:51 pm
ব্রেকিং নিউজ

প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ৫ম পর্যায়ের ২য় ধাপে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষ্যে প্রেস ব্রিফিং

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম Saturday, June 8, 2024
  • 31 দেখা হয়েছে

 

লতিফুর রহমান রাজু.সুনামগঞ্জ: আশ্রয়ণ ২ প্রকল্পের আওতায় চলমান গৃহের ৫ম পর্যায়ের ২য় ধাপের সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাক ইউনিয়নে ৬৩ টি

উপকার ভোগী পরিবারের নিকট প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক আগামী ১১ জুন সকাল ১০ টায় জমি সহ গৃহ প্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে শনিবার ৮ জুন সকাল সাড়ে ১১ টায় সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিং করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রাশেদ ইকবাল চৌধুরী। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব ছাব্বির আহমদ আখঞ্জির সভাপতিত্বে ও আর ডিসি মহিবুল্লা আকন এর সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ সদর ইউএনও মৌসুমী মান্নান. সহকারী কমিশনার সদর ভূমি মোহাম্মদ এমদাদুল হক শরীফ. সুনামগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু সহ গণমাধ্যমকর্মী গণ।

প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয় “বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না” প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের সকল তুমিহীন ও গৃহহীন মানুষের বাসস্থান নিশ্চিতকল্পে সেমিপাকা একক গৃহ নির্মাণের কর্মসূচী হাতে নেওয়া হয়। সারাদেশের সকল ভূমিহীন-গৃহহীন মানুষকে জমিসহ সেমিপাকা ঘর দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়।

প্রাথমিকভাবে ‘ক’ শ্রেণির পরিবারের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সরকারি নিষ্কন্টক খাস জমি, সরকারিভাবে ক্রয়কৃত জমি, সরকারের অনুকূলে কারো দানকৃত জমি অথবা রিজিউমকৃত জমিতে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের পুনর্বাসন করা হচ্ছে।
প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহের এ প্রকল্পটিতে বিশেষভাবে সংযোজন করা হয় ৪০০ বর্গফুট আয়তনের দুই কক্ষ বিশিষ্ট সেমিপাকা একক গৃহ। এই ঘরে সুপরিসর দুইটি কক্ষের সামনে টানা বারান্দা, পেছনে রয়েছে রান্না ঘর ও স্বাস্থ্য সম্মত স্যানিটারী লেট্রিন। বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সংযোগের পাশাপাশি রয়েছে নিরাপদ সুপেয় পানির ব্যবস্থা। ক্লাস্টারভিত্তিক স্থাপিত প্রকল্প গ্রামগুলোতে সুনির্দিষ্ট দৃষ্টিনন্দন লে-আউটের মাধ্যমে অভ্যন্তরীণ রাস্তা, কমিউনিটি সেন্টার, পুকুর, খেলার মাঠ, পার্ক, বাজার প্রভৃতি নিশ্চিত করা হয়।

জেলার ১২ টি উপজেলায় সর্বশেষ হালনাগাদকৃত মোট ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের সংখ্যা ৮৩৩৮ এর মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর-৭৬৮ টি, দোয়ারাবাজার-৭৫৮টি, বিশ্বম্ভরপুর-৭৩১ টি, ছাতক- ৮১০ টি, জগন্নাথপুর- ৬১৭ টি, ধর্মপাশা-৫২০ টি, মধ্যনগর- ৮০ টি, জামালগঞ্জ- ৮১৩ টি, শাল্লা- ১৫২৫ টি, শান্তিগঞ্জ- ৪৫৩ টি, তাহিরপুর-৩৮৬ টি এবং দিরাই উপজেলায় ৮৭৭ টি।

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ জেলায় ১ম পর্যায়ে ৩,৯০৮, ২য় পর্যায়ে ৩৫৮, ৩য় পর্যায়ের ১ম, ২য় ও ৩য় ধাপে ১৯৪৬ এবং ৪র্থ পর্যায়ের ১ম, ২য় ও ৩য় ধাপে ১৭১৯ টি পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান করা হয়।

আগামী,,১১ জুন প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ৫ম পর্যায়ের ২য় ধাপে জামালগঞ্জ উপজেলায় ৬৩ টি পরিবারকে জমি ও গৃহ হস্তান্তর করা হবে।

এখানে আরও উল্লেখ্য যে, বিগত ২২/০৩/২০২৩ তারিখে সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলাকে, ০৯/০৮/২০২৩ তারিখ ধর্মপাশা ও শাল্লা উপজেলাকে এবং ১৪/১১/২০২৩ তারিখে সুনামগঞ্জ সদর, দোয়ারাবাজার, মধ্যনগর, শান্তিগঞ্জ ও তাহিরপুর উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১১/০৬/২০১৪ তারিখ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক জামালগঞ্জ, দিরাই, ছাতক ও জগন্নাথপুর উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করার সাথে সাথে সুনামগঞজ জেলাকেও ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত জেলা হিসেবে ঘোষণা

করা হবে।

সুনামগঞ্জ জেলায় এ পর্যন্ত তালিকাভুক্ত ৮৩৩৮ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে ৭৯৩১ টি পরিবারকে পুনর্বাসিত করা হয়েছে। আগামী ১৯/০৬/২০২৪ তারিখে জামালগঞ্জ উপজেলার ৬৩ টি পরিবারকে জমি ও গৃহ হস্তান্তর করা হলে এ জেলায় মোট ৭৯৯৪ টি পরিবার জমি ও গৃহ প্রাপ্তির মাধ্যমে পুনর্বাসিত হবেন।

তাছাড়া আরও ৩৪৪ টি পরিবার আশ্রয়ণ প্রকল্পের বিভিন্ন ব্যারাকে এবং গুচ্ছগ্রামে পুনর্বাসিত হয়েছেন।

জামালগঞ্জ উপজেলার ৬৩টি পরিবারকে জমি ও গৃহ হস্তান্তর করা হলে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ব্যারাক ও গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পে ৩৪৪টি এবং একক ঘরে ৭৯৩১ টিসহ সর্বমোট পুনর্বাসিত পরিবারের সংখ্যা হবে (৩৪৪+৭৯৯৪)=৮৩৩৮ টি

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...
themesba-lates1749691102