April 20, 2024, 2:13 pm
ব্রেকিং নিউজ

মিয়ানমারে জান্তার ভয়ে দেশ ছাড়ছে জনগণ

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম Tuesday, February 20, 2024
  • 32 দেখা হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক:
দিন দিন ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে মিয়ানমারের আন্তঃকোন্দল। বিদ্রোহীগোষ্ঠীদের ক্রমাগত আক্রমণে ভড়কে যাচ্ছে জান্তা দল। শহরে শহরে বেড়েছে ব্যাপক সংঘর্ষ। একের পর এক জান্তাদের হাতছাড়া হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ ঘাঁটি।

ক্ষমতার লড়াইয়ে টিকে থাকতে দেশটির সেনাবাহিনী অবলম্বন করছে নানা কৌশল। তরুণ-তরুণীদের জন্য বাধ্যতামূলক করা হয়েছে সামরিক প্রশিক্ষণ। এরপর নির্দিষ্ট মেয়াদে সামরিক বাহিনীর হয়ে কাজ করাও আবশ্যক করা হয়েছে।

চলমান এ চরম অস্থিতিশীল পরিস্থিতিতে দেশ ছাড়তে মরিয়া হয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষ। সোমবার ইরাবতীর প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এ তথ্য।

বিদ্রোহীগোষ্ঠী এবং জান্তাদের মধ্যকার দ্বন্দ্বে বেশ করুণ পরিস্থিতি সাধারণ জনগণের। ভয়ে-আতঙ্কে দেশ ছেড়ে পালাতে চাচ্ছে তারা। পাসপোর্ট অফিসে দলে দলে ভিড় জমাচ্ছে অনেকে।

সোমবার মান্দালয়ের পাসপোর্ট অফিসে পদদলিত হয়ে দুই নারীর মৃত্যু হয়েছে। আরও তিন নারী ভিড়ের মধ্যে দম বন্ধ হয়ে জ্ঞান হারায়। দুই সপ্তাহ আগে ঘোষণা দেওয়া সামরিক আইন থেকে বাঁচতে দেশ ছাড়ার হিড়িক পড়ে গেছে। পাসপোর্ট অফিসে ঢোকার জন্য লাইন ধরে হাজার হাজার মানুষ। সেখানেই এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ইয়াঙ্গুন এক ভিসা এবং পাসপোর্ট এজেন্ট জানায়, ১০ ফেব্রুয়ারি সামরিক জান্তার ঘোষণার পর বিপুলসংখ্যক মানুষ পাসপোর্ট তৈরির জন্য ব্যাকুল হয়ে পড়ে। অন্যদিকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে উত্তরাঞ্চল থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে ক্ষমতাসীন জান্তা। নিরাপত্তার স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে দক্ষিণে হামলা জোরদার করেছে তারা। মিয়ানমারের সঙ্গে যুদ্ধরত বিদ্রোহীগোষ্ঠী আরকান আর্মি (এএ) এ তথ্য দিয়েছে।

আরকান আর্মির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘জান্তা বাহিনী এটা নিশ্চিত হয়ে গেছে আমাদের প্রতিরোধ করতে গেলে তারা পরাজিত হয়ে যাবে। সে কারণে আমরা যেসব শহর দখলে নিচ্ছি সেগুলোর তল্লাশিচৌকি এবং ঘাঁটি পুড়িয়ে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে তারা।’

দেশজুড়ে চলমান এমন অস্বাভাবিক পরিস্থিতির মধ্যেই নির্বাচনের তোড়জোড় চালাচ্ছে জান্তা। দেশটির নির্বাচন কমিশন এবং সামরিক সরকার নিয়ন্ত্রিত একাধিক মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে বলে জানা গেছে। সরকারের ধর্মবিষয়কমন্ত্রী কো কোকে নির্বাচন কমিশনের প্রধান করেছেন জান্তাপ্রধান জেনারেল মিন অং হ্লাইং।

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...
themesba-lates1749691102