April 19, 2024, 1:40 am
ব্রেকিং নিউজ

ঝিনাইদহে হাত দিয়েই তুলে ফেলা যাচ্ছে পিচের ঢালাই।।ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম Tuesday, March 28, 2023
  • 66 দেখা হয়েছে

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে মাত্র দেড় কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণের একদিন না যেতেই হাত দিয়েই তুলে ফেলা যাচ্ছে পিচের ঢালাই। রাস্তাটি নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, নিম্নমানের বিটুমিন, ইট ও বালি ব্যবহার করা হয়েছে এ রাস্তায়। রাস্তাটি পুনরায় নির্মাণের দাবি তাদের।

জানা গেছে, উপজেলার চাপরাইল বাজার থেকে সিংগী বাজার পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণের কাজটি পায় ঝিনাইদহের কাঞ্চননগর এলাকার ঠিকাদার নিশিত বসু। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গুরুত্বপূর্ণ পল্লি অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প-৩ (আইআরআইডিপি) এর আওতায় রাস্তাটি নির্মাণের ব্যয় ধরা হয় ৮১ লাখ ৬৩ হাজার ৩৩৭ টাকা। এই কাজটির তদারকির দায়িত্বে ছিলেন উপসহকারী প্রকৌশলী আবু তাহের। ঠিকাদার নিশিত বসুর কাছ থেকে কাজটি নেন ঝিনাইদহের রাশেদ হোসেন নামের এক ব্যক্তি। তিনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি হিসেবে কাজটি দেখাশোনা করেন। সোমবার বিকালে কাজ শেষ করেছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, গত কয়েক দিন আগে রাস্তাটি নির্মাণের কাজ শুরু হয়। সোমবার বিকালে কাজ শেষ হয়েছে। রাস্তা নির্মাণে একদমই নিম্নমানের ইট, বিটুমিন ব্যবহার করা হয়েছে। অপরিষ্কার রাস্তায় পিচ ঢালায়ের কারণে সেগুলো উঠে যাচ্ছে। হাত দিয়েই তুলে ফেলা যাচ্ছে পিচ ঢালাই। দুই দিন পার হয়ে গেলেও পিচ ও খোয়া জমাট বাঁধেনি। পিচের ঢালাই হাত দিয়ে উঠানো যাচ্ছে।

সরেজমিন মঙ্গলবার সকালে সিংগী বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরির প্রতিবাদ জানিয়ে স্থানীয়রা বিক্ষোভ করছেন। তারা রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় তারা হাত দিয়ে পিচের ঢালাই উঠে যাওয়ার দৃশ্য দেখান। পুনরায় তারা এ রাস্তা নির্মাণের দাবি জানান এবং এর সঙ্গে জড়িত সবার শাস্তির দাবি জানান।

সিংগী বাজার এলাকার সুজয় সাহা জানান, সরকার রাস্তা নির্মাণের জন্য কোটি কোটি টাকা ব্যয় করছে আর ঠিকাদার সব মেরে খাচ্ছে। রাস্তায় পিচ দেওয়ার একদিনের মাথায় সব উঠে যাচ্ছে। এমন রাস্তা করার চেয়ে না করায় ভালো। ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহনের চাকার সঙ্গে পিস উঠে যাচ্ছে।

একই এলাকার তপন কুমার ঘোষ জানান, সোমবার রাস্তার কাজ শেষ করেছে ঠিকাদার। মঙ্গলবার সকালে ভ্যান যাওয়ার সময় চাকার সঙ্গে পিচের ঢালাই উঠে যাচ্ছিল। এ সময় কয়েকজন রাস্তায় হাত দিলে পিসের ঢালায় উঠতে থাকে। এমন রাস্তা জীবনেও দেখিনি। রাস্তাটি পুনরায় নির্মাণের দাবি জানাচ্ছি।

ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি রাশেদ হোসেন জানান, রাস্তার কাজ ইঞ্জিনিয়ার বুঝে নিয়েছেন। এখন আর কিছুই করার নেই। আর পিস জমাট বাঁধতে সময় লাগে।

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ জানান, তিনি নিজে দাঁড়িয়ে থেকে কাজ দেখেছেন। একটু সময় দিলে পিচ জমে যাবে।

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...
themesba-lates1749691102