April 19, 2024, 2:25 am
ব্রেকিং নিউজ

মাস্টার্স অব ল’র সনদ নিলেন ৭৩ বছর বয়সী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যা আবদুল আউয়াল মিন্টু

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম Tuesday, March 7, 2023
  • 82 দেখা হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক:
ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের কুইন মেরি কলেজ থেকে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ল’তে মাস্টার্স ডিগ্রি (এল.এল.এম) অর্জন করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি আবদুল আউয়াল মিন্টু।

সোমবার ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের বার্বিকান সেন্টারে গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে এল.এল.এম এর সনদ গ্রহন করেন ৭৩ বছর বয়সী এ শিক্ষার্থী। এসময় তাকে বেশ হাস্যোজ্জ্বল ও উৎফুল্ল দেখা যায়।

এর আগেও এগ্রিকালচার অব ইকোনমিকস এবং মেরিন ট্রান্সপোর্টেশনে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেছেন তিনি।

বাবার এমন অর্জনে আবেগ ধরে রাখতে পারেননি বড় ছেলে তাবিথ আউয়াল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘আমার বাবা আব্দুল আউয়াল মিন্টু প্রতিনিয়ত তার কাজের মধ্য দিয়ে আমাদের অনুপ্রাণিত করেন। রাজনীতি, সমাজসেবা, ব্যবসা—সবকিছু সামলে এখনও জ্ঞানচর্চার জায়গায় তার বিন্দুমাত্র ছাড় নেই। বরং প্রতিবছরই যেন আমাদের জন্য সফলতার নতুন নতুন মান নির্ধারণ করে দেন তিনি। আজ (যুক্তরাজ্যে সোমবার) বাবাকে আবারও অভিনন্দন জানাই তার তৃতীয় মাস্টার্স ডিগ্রি (মাস্টার অব ল’জ) অর্জনের জন্য।’

২০১৭ সালের মে মাসে ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনে আইনে মাস্টার্সের ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তি হন আব্দুল আউয়াল মিন্টু। এরপর মোট চারটি কোর্সে ৫৩, ৬১, ৬২ ও ৬৪ নাম্বার পেয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।

আবদুল আউয়াল মিন্টু তিন সন্তানের জনক। তিনি ১৯৪৯ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ফেনীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ফেনী সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয় থেকে ১৯৬৪ সালে এসএসসি ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে ১৯৬৬ সালে এইচএসসি পাস করেন।

মার্কেন্টাইল মেরিন একাডেমি চট্টগ্রাম থেকে নৌবিজ্ঞানে ১৯৬৮ সালে ডিপ্লোমা করেন। নিউইয়র্ক স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে ১৯৭৩ সালে মেরিন ট্রান্সপোর্টেশন বিজ্ঞানে বিএসসি ডিগ্রি ও ১৯৭৭ সালে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।

১৯৯৫ সালে কৃষি ব্যবসা শুরু করার পর সোয়াচ, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে এগ্রিকালচার অব ইকোনমিকসে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

আবদুল আউয়াল মিন্টু কর্মজীবনে মেরিন একাডেমি থেকে জাহাজের ক্যাডেট হিসেবে যোগদান করেন। চাকরি করেন আমেরিকান জাহাজ কোম্পানিতে। ১৯৮১ সালে জাহাজ কোম্পানির চাকরি ছেড়ে দেশে ফিরে শুরু করেন শিপিং লাইনের ব্যবসা। আমেরিকান লাইনেই তিনি প্রথম পাঁচ-সাত বছর শিপিং ব্যবসা করেন। এরপর দুলামিয়া কটন স্পিনিং মিল এবং প্রগতি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স প্রতিষ্ঠা করেন।

তিনি ১৯৮৩ সালে বেসরকারি ব্যাংক ন্যাশনাল ব্যাংক প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে অন্যতম। এরপর ১৯৯৫ সালে কৃষি সেক্টরে ব্যবসায় হাত দেন। দেশের অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি বীজ কোম্পানি লাল তীর সিডের চেয়ারম্যান তিনি।

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...
themesba-lates1749691102