February 21, 2024, 4:01 pm
ব্রেকিং নিউজ

দৌলতপুরে ওএমএস সরকারি চাউল ট্রাকে বিক্রি ডিলারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট টাইম Monday, March 6, 2023
  • 362 দেখা হয়েছে

 স্টাফ রিপোর্টার: নগরীর ৬ নং ওয়ার্ডে ও এম এস ট্রাকে বিক্রি ডিলারের বিরুদ্ধে সরকারি চাউল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ডিলার কর্তৃক গরিব সাধারণ দিন-মজুরদের প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী ও এম এস এর সরকারি চাল বরাদ্দ দেয়া হয় সেই চাউল গরিবদেরকে পুরোপুরি না দিয়ে বাজারে বিক্রির করে দেয় বলে ওএমএস’র চাউল নিতে আসা ১৫ জন প্রত্যক্ষদর্শীদের স্বাক্ষরিত ১ টি আবেদন গতকাল ৬ মার্চ খুলনা জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের বরাবর জমা দিয়েছে। ডিলার গাড়ি টেনে চলে যাওয়ায় খুলনা জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বরাবর একটি আবেদন জমা দিয়েছে আবেদনে উল্লেখ করেছে জেসমিন আক্তারের মালিকানাধীন মেসার্স শান্ত এন্টারপ্রাইজের ট্রাক গতকাল ৬ই মার্চ বিএল কলেজ দ্বিতীয় গেটে কাশিপুর সকাল থেকে চাউল বিতরণ শুরু করেন। বেলা বারোটা বাজার সাথে সাথেই ১০ বস্তা চাউল নিয়ে গাড়িটি টেনে চলে যায়। তখনও ঘটনা স্থলে ২৫ জন লোক উপস্থিত ছিলেন। বিএল কলেজ রোড কাশিপুর এলাকার বাসিন্দা নাজনীন ইসলাম, শারমিন বেগম, হেনা বেগম, মোহাম্মদ নোমান ও মোহাম্মদ শাকিল জানান দুপুর ১২ টার সময় আমরা চাউল নিতে গেলে ডিলারের নামের যে প্যানাটি সেটি পেচানো ছিল বারোটার দিকে প্রায় ২৫ জন লোক উপস্থিত ছিলেন মহিলা পুরুষ দিয়ে গাড়ির মধ্যে ১০ বস্তা চাউল ছিল তখন সবাই চাউল চাইলে তিনি তাদেরকে চাউল দেননি না দিয়ে গাড়ি টেনে চলে গিয়েছেন। তখন আমরা চিল্লাপাল্লা করলেও তিনি আমাদের কথা শোনেননি। সিডিসির ক্লাষ্টারার সাধারণ সম্পাদক হেনা বেগম ডিলারকে চাল দিতে সুপারিশ করলে ডিলার তাকে বেশি কথা বলে চাউল না দিয়ে চলে যান। তিনি বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গরিব মানুষের জন্য এই চাউল বরাদ্দ দিলেও সেই চাউল সম্পূর্ণ গরিব মানুষরা পায়না ডিলাররা এই চাউল নিয়ে বিক্রি করে ফেলে বাজারে। ডিলারের কিছু পরিচিত মুখ চেনা লোক তারা এসে একেক জনে দুই থেকে তিনবার চাউল নিয়ে যাচ্ছে গাড়ির সাইট থেকে তাদেরকে দিয়ে দিচ্ছে কিন্তু আমরা এই ওয়ার্ডের আইডি কার্ড নিয়ে এসে ঘন্টার পর দাঁড়িয়ে থেকেও আমরা চাউল পাইনি। বরং সে ১০ বস্তা চাউল নিয়ে গাড়ি টেনে চলে গিয়েছে। মহানগর পরিদর্শক মোঃ আশরাফুজ্জামানের সাথে কথা হলে এ বিষয়ে তিনি জানান, যারা আবেদন করেছে তারা সঠিক কাজ করেছে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের দপ্তরে আবেদন করেছে তিনি বিষয়টি তদন্ত করে দেখবেন এবং এই ডিলার অনিয়ম করে থাকলে ডিলারের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে দৌলতপুর থানা আওয়ামী লীগের নেতা মিজানুর রহমান তরফদার মিজা বলেন’ আমি বারোটার একটু পরে ওইখান থেকে আমার কাজ সেরে আসতে ছিলাম তখন আমি চার বস্তার মত চাউল দেখেছি। বিএল কলেজ রোড এলাকার ব্যবসায়ী মোঃ জুলফিকার হোসেন জানান, চাউলের ট্রাক চলে যাওয়ার পরে অসহায় মানুষদের মুখের দিকে তাকিয়ে আমি তাদেরকে কষ্টের কথা ভেবে কয়েকজনকে কিছু চাউল আমি নিজে কিনে দিয়েছি। মোহাম্মদ নোমান ও শাকিল জানান, আমরা আইডি কার্ড নিয়ে আসার পরেও আমরা চাউল পাইনি আমাদেরকে চাউল না দিয়ে গাড়ি টেনে চলে গিয়েছে। আমরা এ সমস্ত ডিলারকে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার আবেদন জানাচ্ছি। তা না হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে গরিব মানুষের জন্য চাউল বিতরণ করছেন যাতে বাজারে যারা চাউল না কিনতে পারে অনেক দাম দিয়ে তাদের জন্য আর সেই চাউল বিতরণ না করে গাড়ি টেনে চলে যায়। আমরা তার বিচারের দাবি জানাইতাতে তারা উল্লেখ করেছে গাড়িতে চাউল থাকা সত্বে ও গরিব সাধারণ মানুষকে চাউল না দিয়ে গাড়ি টেনে ডিলার চলে গেছে।

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...
themesba-lates1749691102